আল মামুন

কমিউনিটি রেডিও : ‘বন্যায় আগে আমাগো অনেক ক্ষতি হইতো’

কমিউনিটি রেডিও : ‘বন্যায় আগে আমাগো অনেক ক্ষতি হইতো’

আল মামুন

মহাসেনসহ বিভিন্ন ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে বরগুনার উপকূলের অনেক এলাকা প্লাবিত হয়ে যায়। এতে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। আমন মৌসুমে যেখানে পানি জমে সেখানে বিরি ধান ৫১ও ৫২ লাগানো যায়। এগুলো ঘূর্ণিঝড় ও লবন সহনশীল। এসব জাত দুর্যোগ সহনীয়। কিছু আছে ঘূর্ণিঝড় মৌসুমের আগেই পাকে। তাই আগেই কেটে ঘরে তোলা যায়। অথচ লতাবাড়িয়া গ্রামের আমিনুল ইসলাম মনির মত উপকূলের অনেক কৃষকেরই বিষয়টি জানা ছিলো না। জানতেন না বলেই দুর্যোগের সময় অনেকে ফসল-আবাদি জমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছেন।

আমিনুল ইসলাম বলেন, বন্যায় আমাগো অনেক ক্ষতি হইছে। অনেক ফসল ভাইস্যা গ্যাছে। আগে যেই সব ফসল লাগানো হইতো তা লবন মাটিতে টেকতো না। এ্যার পরে লবন সহনীয় ফসল উদ্ভাবন হইছে। লবন সহনীয় ধান হইলো বিনা-৮, বিনা-১০।  আমাগো এই অঞ্চলের জন্য এগুলা উপযোগী। এগুলা আগাম পাইক্যা যায়, ফলনও ভালো হয়।

তিনি বলেন, আমরা আগে এইসব কিচ্ছু জানতাম না। লোকবেতারের ঘুরে দাঁড়াই অনুষ্ঠানডা শুইন্যা সব জানতে পারছি।

দুর্যোগে আমনসহ বিভিন্ন ফসল হানি হওয়ায় দুশ্চিন্তায় পড়তে হয় ক্ষুদ্রও প্রান্তিক কৃষকদের। বন্যার পানি নেমে গেলেও ক্ষতি পুষিয়ে নিতে হিমশিম খান তারা। কমিউনিটি রেডিওর মাধ্যমে গ্রামীণ কৃষি বিষয়ক অনুষ্ঠান প্রচারের ফলে কৃষকরা নতুন নতুন সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজে পাচ্ছেন। এবং ফলন বাড়াতে পারেন। যা দেশের সামগ্রিক উৎপাদন বৃদ্ধিতে বড় ধরনের ভূমিকা রাখছে।

আমতলীর গুলিশাখালী গ্রামের বশির উদ্দিন বলেন, আমাগো গ্রামের অনেক ঘরেই টিভি নাই। আমরা লোকবেতার রেডিও শুনি।আমরা পায়রা নদীর পাড়ের মানুষ। ঘূর্ণিঝড় আইলে আমাগো ফসল, ঘরবাড়ি ভাসাইয়া নিয়া যায়। লোকবেতার শুইন্যা আমরা সতর্ক হইতে পারি।

বরগুনা জেলা সমুদ্র উপকুলীয় এলাকায় অবস্থিত বলে প্রায় জলোচ্ছাস এবং ঘূর্ণিঝড়সহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্মুখীন হয়। এছাড়া ভৌগলিক অবস্থানের কারণে এই অঞ্চলের জন্য প্রাকৃতিক  দুর্যোগ একটি মারাত্মক আতংক। এই সকল দুর্যোগ এর পূর্ব এবং পরবর্তী সময়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে এবং জনগণের জানমাল রক্ষার্থে এবং প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণে কমিউনিটি রেডিও খুবই কার্যকর ভূমিকা পালন করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *