আল মামুন

আলোচিত উক্তি

আলোচিত উক্তি

জীবনে অনেক চড়াই উৎরাই পার করেছেন ড. এ পি জে আবদুল কালাম। জীবন তাঁকে শিখিয়েছে অনেক কিছু। জীবন থেকে নেওয়া সেসব শিক্ষার কথা খুব সহজ করে বলতেন তিনি। কেবল বিজ্ঞান নয়, শিক্ষা, সাহিত্য, স্বাস্থ্য, বিচারব্যবস্থা— জীবনের সবকিছু নিয়েই তিনি কথা বলতেন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে। আর এসব টুকরো টুকরো কথা থেকেই পাওয়া যেত অনেক বড় বড় দর্শন। যা কাজে লাগাতে পারলে জীবনটা বদলানো সম্ভব। সরল ও নিরহংকার জীবন-দর্শনের জন্য পরিচিত ছিলেন তিনি। ড. কালামের জীবনের কিছু দর্শন চিরদিন মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে। তাঁর আলোচিত উক্তির কয়েকটি এখানে দেওয়া হলো—

  • স্বপ্ন বাস্তব হওয়ার আগে তোমাকে আগে স্বপ্ন দেখতে হবে।
  • সফল হতে হলে নিষ্ঠার সঙ্গে শুধু নিজ লক্ষ্যের প্রতিই মনোযোগ দিতে হবে।
  • একজন নেতার ব্যাখ্যা দিই— তাঁর অবশ্যই দূরদৃষ্টি ও অবেগ থাকতে হবে এবং কোনো সমস্যায়ই ভীত হওয়া যাবে না। এর পরিবর্তে তাঁকে জানতে হবে, কীভাবে এটি পরাজিত করা যায়। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো, তাঁকে অবশ্যই নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করতে হবে।
  • বড় স্বপ্নদ্রষ্টার বৃহৎ কোনো স্বপ্ন সব সময়ই সীমা ছাড়িয়ে যায়।
  • আমাদের বর্তমান বিসর্জন দেওয়া হবে যেন আমাদের সন্তানদের ভবিষ্যৎ সুন্দর হয়।
  • প্রত্যেক ব্যক্তির মৌলিক অধিকার আছে তার নিজের ধর্ম, কৃষ্টি আর ভাষার প্রতি আস্থাবান হবার। আমরা কোনোভাবেই কোনো কিছুকে বিনষ্ট করতে পারি না।
  • মানুষের কঠিন সময় দরকারি বিষয় কারণ, সফলতায় আনন্দ পেতে এর প্রয়োজন আছে।
  • আকাশের দিকে তাকাও। আমরা একা নই। সারা মহাবিশ্বই আমাদের বন্ধুর মতো এবং সবচেয়ে ভালোটিই দেয় যে স্বপ্ন দেখে ও চিন্তা করে।
  • তোমরা দেখ, সৃষ্টিকর্তা তাঁদেরই সহায়তা করে, যাঁরা কঠোর পরিশ্রম করেন। এই নীতি একদম পরিষ্কার।
  • আমি সম্ভাবনা নিয়ে জন্মেছি। আমি জন্মেছি মঙ্গল আর বিশ্বাস নিয়ে। আমি এসেছি স্বপ্ন নিয়ে। মহৎ লক্ষ্য নিয়েই আমার জন্ম। হামাগুড়ির জীবন
  • আমার জন্য নয়, কারণ আমি ডানা নিয়ে এসেছি। আমি উড়ব, উড়ব, আমি উড়বই।
  • রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব বা বিরোধ মেটানোর জন্য যেকোনো একটি বড় দেশের থাকতে হবে চারটি গুণ— ভিশন বা স্বপ্ন; জেনেরোসিটি বা ঔদার্য; কমপ্যাশন বা সমবেদনা; উইন উইন অ্যাটিচ্যুড বা জিত জিত মনোভাব।
  • স্বপ্ন বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত তোমাকে স্বপ্ন দেখতে হবে। আর স্বপ্ন সেটা নয় যেটা তুমি ঘুমিয়ে দেখ, স্বপ্ন হল সেটাই যেটা পূরণের প্রত্যাশা তোমাকে ঘুমাতে দেয় না।
  • তুমি তোমার ভবিষ্যত পরিবর্তন করতে পারবে না কিন্তু তোমার অভ্যাস পরিবর্তন করতে পারবে এবং তোমার অভ্যাসই নিশ্চিত ভাবে তোমার ভবিষ্যত পরিবর্তন করবে।
  • সফলতার গল্প পড়ো না কারণ তা থেকে তুমি শুধু বার্তা পাবে। ব্যর্থতার গল্প পড় তাহলে সফল হওয়ার কিছু ধারণা পাবে।
  • জাতির সবচেয়ে ভাল মেধা ক্লাসরুমের শেষ বেঞ্চ থেকে পাওয়া যেতে পারে।
  • জীবন এবং সময় পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষক। জীবন শিখায় সময়কে ভালভাবে ব্যবহার করতে সময় শিখায় জীবনের মূল্য দিতে।
  • তোমার কাজকে ভালবাস কিন্তু তোমার কোম্পানিকে ভালবাসো না। কারণ তুমি হয়ত জান না কখন কোম্পানিটি তোমাকে ভালবাসবে না।
  • তুমি যদি সূর্যের মতো আলো ছড়াতে চাও, তাহলে আগে সূর্যের মতো জ্বলো।
  • জীবন হলো এক জটিল খেলা। ব্যক্তিত্ব অর্জনের মধ্য দিয়ে তুমি তাকে জয় করতে পার।
  • জটিল কাজেই বেশি আনন্দ পাওয়া যায়। তাই সফলতার আনন্দ পাওয়ার জন্য মানুষের কাজ জটিল হওয়া উচিত।
  • পরম উৎকর্ষতা হলো একটি চলমান প্রক্রিয়া। এটা হঠাৎ করেই আসে না। ধীরে ধীরে আসে।
  • যারা মন থেকে কাজ করে না, তাঁরা আসলে কিছুই অর্জন করতে পারে না। আর করলেও সেটা হয় অর্ধেক হৃদয়ের সফলতা। তাতে সব সময়ই একরকম তিক্ততা থেকে যায়।
  • প্রজ্জ্বলিত তরুণ মনসমূহ একটি শক্তিশালী সম্পদ। ভূমি, আকাশ এবং সমুদ্র তলের অন্যান্য সম্পদের চেয়েও এই সম্পদ বেশি শক্তিশালী।
  • আমরা তখনই স্মরণীয় হয়ে থাকবো, শুধুমাত্র যখন আমরা আমাদের উত্তর প্রজন্মকে উন্নত ও নিরাপদ ভারত উপহার দিতে পারবো।
  • শিক্ষাবিদদের উচিত শিক্ষার্থীদের মাঝে অনুসন্ধানী, সৃষ্টিশীল, উদ্যোগী ও নৈতিক শিক্ষা ছড়িয়ে দেয়া, যাতে তারা আদর্শ মডেল হতে পারে।
  • তরুণ প্রজন্মের কাছে আমার আহ্বান হলো ভিন্নভাবে চিন্তা করার সাহস থাকতে হবে। আবিষ্কারের নেশা থাকতে হবে। যে পথে কেউ যায়নি, সে পথে চলতে হবে। অসম্ভবকে সম্ভব করার সাহস থাকতে হবে। সমস্যা চিহ্নিত করতে হবে এবং তারপর সফল হতে হবে। এগুলোই হলো সবচেয়ে মহৎ গুণ। এভাবেই তাদেরকে এগিয়ে যেতে হবে। তরুণদের কাছে এটাই আমার বার্তা।
  • উৎকর্ষ একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া এবং এটা কোনো দুর্ঘটনা নয়।
  • আন্তরিকতা হৃদয় থেকে উৎসারিত। সর্বশক্তিমান ছাড়া কেউ তা দিতে পারে না।
  • জীবনে সমস্যার প্রয়োজন আছে। সমস্যা আছে বলেই সাফল্যের এতো স্বাদ।
  • যে হৃদয় দিয়ে কাজ করে না, শূন্যতা ছাড়া সে কিছুই অর্জন করতে পারে না।
  • শিক্ষাবিদদের বিচক্ষণতা, সৃজনশীলতার পাশাপাশি উদ্যোগী হওয়ার ও নৈতিক নেতৃত্বেরও শিক্ষা দেওয়া উচিত। সেই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের মধ্যে নিজেকে পথিকৃৎ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার যোগ্যতা অর্জন করা উচিত।
  • যদি একটা দেশকে সম্পূর্ণরূপে দুর্নীতিমুক্ত ও একটা জাতিকে সুন্দর মনের অধিকারী করতে হয়, তাহলে আমি বিশ্বাস করি, তিনজন ব্যক্তি এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখতে পারেন— বাবা, মা ও শিক্ষক।
  • আমরা শুধু সাফল্যের উপরেই গড়ি না, আমরা ব্যর্থতার উপরেও গড়ি।
  • আকাশের দিকে তাকাও। আমরা একা নই। মহাবিশ্ব আমাদের প্রতি বন্ধুপ্রতীম। যারা স্বপ্ন দেখে ও সে মতো কাজ করে, তাদের কাছেই সেরাটা ধরা দেয়।
  • আমি আবিষ্কার করলাম সবচেয়ে দ্রুতগতিতে বেশি বিক্রি হয়ে যায় সিগারেট ও বিড়ি। অবাক হয়ে ভাবতাম, গরিব মানুষেরা তাদের কঠোর পরিশ্রমে উপার্জিত অর্থ এভাবে ধোঁয়া গিলে উড়িয়ে দেয় কেন।
  • সমস্যাকে কখনো এড়িয়ে যেতে চাইবে না। বরং সমস্যা এলে তার মুখোমুখি দাঁড়াবে। মনে রাখবে, সমস্যাবিহীন সাফল্যে কোনো আনন্দ নেই। সব সমস্যার সমাধান আছেই।
  • জীবনের অভিজ্ঞতা দিয়ে মূলত চারটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের প্রতি আমি আলোকপাত করি। সেগুলো হলো— জীবনের লক্ষ্য নির্ধারণ, জ্ঞান আহরণ, অনেক বড় সমস্যায় পড়লেও লক্ষ্য থেকে সরে না আসা এবং কোনো কাজে সাফল্য ও ব্যর্থতা দুটোকেই নেতৃত্বগুণে সামাল দিতে পারা।
  • সমস্যাকে কখনো নিজের ওপর চেপে বসতে দেবে না। যত কঠিন সময়ই আসুক না কেন, কখনোই হাল ছেড়ে দেবে না।
  • হতাশ না হয়ে নিজেকে স্বপ্নপূরণের কতটা কাছাকাছি নিয়ে যেতে পারছ, সেদিকে নজর রাখবে। কখনোই সাহস হারাবে না। নিজের একটি দিনও যাতে বৃথা মনে না হয়, সে চেষ্টা করবে।
  • স্বপ্নকে সত্যি করতে হলে প্রথমে তোমাকে স্বপ্ন দেখতে হবে।
  • সাফল্যকে উপভোগ করার জন্যই জীবনে প্রতিবন্ধকতা প্রয়োজন।
  • যারা হৃদয় দিয়ে কাজ করতে পারে না; তাদের অর্জন অন্তঃসারশূন্য, উৎসাহহীন সাফল্য চারদিকে তিক্ততার উদ্ভব ঘটায়।
  • যদি একটি দেশকে দুর্নীতিমুক্ত এবং সুন্দর মনের মানুষের জাতি হতে হয়, তাহলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি এক্ষেত্রে তিনজন সামাজিক সদস্য পার্থক্য এনে দিতে পারে। তারা হলেন— বাবা, মা এবং শিক্ষক।
  • মানুষের পীঠ যখন দেয়ালে ঠেকে যায় তখন তার বিস্ফারণ ঘটে।
  • আমি ভাবি, কেন কিছু মানুষ মনে করে বিজ্ঞান মানুষকে দূরে সরিয়ে নিয়ে যায় খোদার কাছ থেকে? আমি এটাকে যেভাবে দেখি তাহলো, বিজ্ঞানের পথ সর্বদা হৃদয়ের ভিতর দিয়ে প্রবাহিত হতে পারে। আমার ক্ষেত্রে বিজ্ঞান হচ্ছে আধ্যাত্মিক সমৃদ্ধি ও আত্ম-উপলব্ধির পথ।
  • বিজয়ী হওয়ার সর্বোত্তম পন্থা হচ্ছে বিজয়ী হওয়ার দরকার নেই মনে করা। তুমি যখন স্বাভাবিক আর সন্দেহমুক্ত থাকবে, তখনই তুমি ভালো ফলাফল করতে পারবে।
  • একজন উদ্যমী ও একজন বিভ্রান্ত মানুষের মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে, তাদের অভিজ্ঞতাকে তাদের মন যেভাবে ব্যবহার করে তার মধ্যে পার্থক্য।
  • দ্রুত কিন্তু কৃত্রিম আনন্দের পেছনে না ছুটে বরং নিখাদ সাফল্য অর্জনের জন্য আরও বেশি নিবেদিত প্রাণ হও।
  • আমি এ কথা বলব না যে আমার জীবন অন্য কারো জন্য রোল মডেল হতে পারে। কিন্তু আমার নিয়তি যেভাবে গড়ে উঠেছে তাতে গরিব শিশুরা হয়তো বা একটু সান্ত্বনা পেতে পারে।
  • প্রশংসা করতে হবে প্রকাশ্যে কিন্তু সমালোচনা ব্যক্তিগতভাবে।
  • আমরা প্রত্যেকেই ভেতরে ঐশ্বরিক আগুন নিয়ে জন্মাই। আমাদের চেষ্টা করা উচিত এই আগুনে ডানা যুক্ত করার এবং এর মঙ্গলময়তার আলোয় জগত পূর্ণ করা।
  • কেউ যখন অসাধারণ হওয়ার জন্য জ্ঞান অর্জন করে তখন সে আসলে আর সবার মতোই সাধারণ হয়ে যায়।
  • স্বপ্ন, স্বপ্ন, স্বপ্ন। স্বপ্ন দেখে যেতে হবে। স্বপ্ন না দেখলে কাজ করা যায় না। স্বপ্নবাজরাই সীমা ছাড়িয়ে যেতে পারেন।
  • যারা পরিশ্রম করেন সৃষ্টিকর্তা তাঁদের সাহায্য করেন।
  • মন থেকে যারা কাজ করে না তাঁদের জীবন ফাঁপা। সাফল্যের স্বাদ তাঁরা পায় না।
  • সত্যি হওয়ার আগ পর্যন্ত স্বপ্ন দেখে যেতে হবে।
  • কেবল বিশেষ সময়ে নয়— নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করে যেতে হবে সবসময়।
  • উদার ব্যক্তিরা ধর্মকে ব্যবহার করে বন্ধুত্বের হাত বাড়ান। কিন্তু সংকীর্ণমনস্করা ধর্মকে যুদ্ধের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে।
  • সেই ভালো শিক্ষার্থী যে প্রশ্ন করে। প্রশ্ন না করলে কেউ শিখতে পারে না। শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন করার সুযোগ দিতে হবে।
  • বিজ্ঞান মানুষের জন্য উপহার, ধ্বংসের জন্য বিজ্ঞান নয়।
  • সৌন্দর্য থাকে মানুষের মনে, চেহারায় নয়।
  • মানুষের কঠিন সময় দরকারি বিষয় কারণ, সফলতায় আনন্দ পেতে এর প্রয়োজন আছে।
  • তুমি নানা সমস্যার শিরোমণি, সমস্যাগুলোকে হটিয়ে সফল হও।
  • স্বপ্ন হলো এমন এক অমিত শক্তির আধার যা হৃদয়ে ধারণ করার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের বস্তু জগৎ ও আধ্যাত্মিক জগত সক্রিয় হয়ে ওঠে।
  • আমি সব সময় তরুণদের স্বপ্ন দেখতে বলি। আমি তাদের অছিয়ত করি এই বিশ্বাসে যে আমাদেও প্রত্যেকের মধ্যে সাফল্যজনক পরিস্থিতি সৃষ্টির সক্ষমতা রয়েছে প্রয়োজন শুধু তীব্র উন্মাদনাপূর্ণ আকাঙ্খা সৃষ্টি করা।
  • আমি যতবার যেখানে গেছি, সবখানেই একটি সাধারণে মেসেজ প্রচারের চেষ্টা করেছি। সেটা হলো— তোমার মধ্যেই আরেকহজন ‘মহান তুমি’ রয়েছে যে এই দৃশ্যমান পৃথিবীর সীমান্ত ছাড়িয়ে যেতে পারে। আমি আমার আব্বার মধ্যে এমন একটি সত্ত্বার উপস্থিতি টের পেয়েছিলাম।
  • If you fail, never give up because F A I L means ‘First Attempt In Learning’.
  • End is not the end, in fact E N D means ‘Effort Never Dies’.
  • If you get No as an answer, remember N O means ‘Next Opportunity’.

চলবে...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *